ব্লু-বেরির প্রকারভেদ ও উপকারিতা

প্রকৃতি আমাদের অনেক ধরণের ফল, শাকসব্জী এবং ভেষজ উদ্ভিদ দিয়েছে। এগুলো থেকে প্রাপ্ত ঔষধি বৈশিষ্ট্য আমাদের সামগ্রিক স্বাস্থ্যের জন্য প্রয়োজনীয়। কিছু ফল ওজন বাড়াতে সহায়তা করে, অন্যটি ওজন হ্রাস করতে সহায়তা করে। কোননো কোনো ফলে অ্যান্ট্যান্সার বৈশিষ্ট্য রয়েছে, কনো কনোটতে শর্করা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা রয়েছে। আমরা এমন ফলের কথা বলছি, যা কেবল স্বাদে সমৃদ্ধ নয়, তবে এতে পাওয়া যায় এমন অনেক ঔষধি গুণাগুণও আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী হতে পারে। আমরা আজ ঔষধি গুণ সম্পূর্ণ ফল ব্লু-বেরি সম্পর্কে কথা বলছি, যা নীলবাদারী নামেও পরিচিত। ব্লু-বেরি ফল দেখতে যেমন আকর্ষণীয় তেমনি এটি উপকারীও। আসুন আমরা ব্লু-বেরি এর সুবিধা, ব্যবহার এবং অসুবিধাগুলি সম্পর্কে বিশদভাবে জানি।

ব্লু-বেরির ধনণ

ব্লু-বেরি গ্রীষ্মকালীন ফল যা এরিকাসি নামক উদ্ভিদের একটি পরিবারের অন্তর্গত। ব্লু-বেরি প্রধানত দুটি পরিবার রয়েছে, যার মধ্যে তিনটি বিভিন্ন ধরণের ব্লুবেরি রয়েছে।

রাবাইটি ব্লু-বেরি বুশ: এতে রয়েছে প্রিমিয়ার, টিফব্লু এবং পাউডার ব্লু ধরণের বেরি।

হাইব্যুশ ব্লু-বেরি বুশ: এই বেরি শীঘ্রই পেকে যায় এবং শীত সহ্য করতে পারে। এর মধ্যে তিন ধরণের বেরি রয়েছে, ক্রোয়েশিয়া, জার্সি এবং মারফি।

ব্লু-বেরির উপকারিতা

ব্লু-বেরিতে এরকম অনেক ঔষধি গুণ রয়েছে, এগুলি আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী হতে পারে। আমরা এখানে এই সুবিধাগুলি বিস্তারিতভাবে ব্যাখ্যা করছি।

১. ওজন কমাতে ব্লু-বেরি খাওয়ার উপকারিতা

স্থূলত্ব এবং বর্ধমান ওজন সবার জন্য সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে ব্লুবেরি খাওয়া আপনার পক্ষে উপকারী হতে পারে। এতে অ্যান্থোসায়ানিন নামে একটি যৌগ রয়েছে। ওজন নিয়ন্ত্রণ করার সময় এই যৌগটি আপনাকে ওজন কমাতে সহায়তা করতে পারে.

২. হৃদয়ের জন্য ব্লুবেরি এর উপকারিতা

হার্টের সমস্যা দূর করার বিষয়ে ব্লু-বেরির চায়ে আরও ভাল প্রাকৃতিক বিকল্প হতে পারে না। ব্লু-বেরি পলিফেনলের একটি ভাল উৎস হিসাবে বিবেচিত হয়।পলিফেনলগুলি আপনাকে হার্টের সমস্যা থেকে রক্ষা করতে পারে। এছাড়াও এটিতে অ্যান্থোসায়ানিন এবং ফাইবারের মতো অন্যান্য পুষ্টি রয়েছে যা কোলেস্টেরল, লিপিড এবং গ্লুকোজ স্তর উন্নত করতে সক্ষম। এই তিনটি স্তরে ব্যাঘাতজনিত কারণে হৃদরোগের সমস্যা হতে পারে।

৩. চোখের জন্য ব্লু-বেরির উপকারিতা

চোখের অনেক সমস্যা কাটিয়ে ওঠার জন্য আপনি ব্লু-বেরি ব্যবহার করতে পারেন। এর ব্যবহারে চোখের অনেক রোগ নিরাময় করা যায়। এটিতে অ্যান্টোসায়ানিন রয়েছে যা একটি শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। ব্লু-বেরিতে পাওয়া এই অ্যান্থোসায়ানিন যৌগটি ম্যাকুলার অবক্ষয়ের ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে। এই চোখের রোগ দেখা দেয় যখন রেটিনার ক্ষুদ্র কেন্দ্রীয় অংশ, যাকে ম্যাকুলা বলা হয়, কোনও কারণে বিকল হয়ে যায়।

৪. ক্যান্সারের প্রতিরোধে ব্লু-বেরি

অনেক রোগের চিকিৎসার ঔষধি গুণগুলো ব্লু-বেরির ভিতরে পাওয়া যায়, এর মধ্যে একটি হলো ক্যান্সার প্রতিরোধ। বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে ব্লু-বেরি কিছুটা হলেও ক্যান্সারের মতো রোগ নিরাময়ে সক্ষম। এতে স্টেরোস্টিলবেন নামে একটি উপাদান রয়েছে, যা বহু রোগ নিরাময়ের জন্য ওষুধ হিসাবে ব্যবহৃত হয়। ব্লু-বেরিতে পাওয়া এই উপাদানটি স্তনের ক্যান্সারের চিকিৎসা সহ অনেক ধরণের ক্যান্সার নিরাময় করতে পারে।

৫. হজমের জন্য ব্লুবেরি খাওয়ার উপকারিতা

এটি বলা হয় যে ভাল পাচন ক্ষমতা অনেক রোগের ওষুধ। আপনি শুনে অবাক হবেন যে ব্লু-বেরির রস আপনার হজম ক্ষমতা উন্নত করতে পারে। আসলে, এতে কিছু পরিমাণ ফাইবার পাওয়া যায় এবং ফাইবার আপনার হজম শক্তি উন্নত করতে কাজ করে । এটি কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো সমস্যার পাশাপাশি ডায়রিয়া এবং বদহজমের সমস্যাগুলি থেকে মুক্তি দেয় এবং হজমের সমস্যার সমাধানে সহায়তা করে।

৬. মস্তিষ্কের জন্য ব্লুবেরির উপকারিতা

আপনি যদি মস্তিষ্কের সমস্যার সাথে লড়াই করে থাকেন তবে আপনি ব্লু-বেরি খাওয়া শুরু করতে পারেন। এতে পাওয়া অ্যান্থোসায়ানিন মস্তিষ্কের সাথে সম্পর্কিত অনেক সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে। এটি বয়সের সাথে বর্ধিত মস্তিষ্কের ব্যাধি দূর করার পাশাপাশি মস্তিষ্কের রক্ত ​​সঞ্চালন উন্নত করতে সহায়তা করে। এছাড়াও, এটি নিউরনের বিকাশে সহায়তা করে যা মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত করে। সুতরাং এটি বলা যেতে পারে যে ব্লু-বেরি গ্রহণ আপনার মস্তিষ্কের পুষ্টি এবং বিকাশের জন্য উপকারী হতে পারে।

৭. ডায়াবেটিসের জন্য ব্লুবেরি খাওয়ার উপকারিতা

ডায়াবেটিসের সমস্যাটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। প্রতি বছর বহু মানুষ এরোগ দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছেন। আপনিও যদি এই সমস্যায় পড়ে থাকেন তবে ব্লু-বেরি সেবন আপনার পক্ষে উপকারী প্রমাণ করতে পারে। আপনি উপরে যেমন পড়েছেন, ব্লু-বেরিতে অ্যান্থোসায়ানিন নামে একটি যৌগ থাকে। এই যৌগটিতে অ্যান্টিবায়াবেটিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা রক্তে চিনির উপস্থিতি কমাতে সহায়তা করতে পারে। এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি এটির সমস্যাও কাটিয়ে উঠতে পারে।

৮. কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণের জন্য ব্লুবেরি সুবিধা

হার্টের সমস্যা বা রক্তচাপের ভয়, সবই আমাদের রক্তে উচ্চ কোলেস্টেরলের কারণে থাকে। এই ক্ষেত্রে, ব্লু-বেরি গ্রহণের ফলে আপনার এলডিএল উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে, অর্থাত ভাল কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়ায়। এটিতে অ্যান্টোসায়ানিন এবং ফাইবার রয়েছে যা ক্ষতিকারক কোলেস্টেরল হ্রাস করতে কাজ করে। তাই কোলেস্টেরলের সমস্যা কাটিয়ে উঠতে আপনার পক্ষে ব্লু-বেরি খাওয়া উপকারী হতে পারে।

৯. স্ট্রং হাড়ের জন্য ব্লুবেরি

অস্থায়ী অকালে দুর্বল হওয়া এখন একটি সাধারণ সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই সমস্যাটি এড়াতে আপনি ব্লু-বেরি সেবন করতে পারেন। এটি হাড়কে শক্তিশালী করে তোলে। ব্লু-বেরি পলিফেনল সমৃদ্ধ, যা আপনাকে শক্তিশালী এবং স্বাস্থ্যকর হাড় তৈরি করতে সহায়তা করে। হাড়কে শক্তিশালীকরণ অস্টিওপোরোসিস নামে একটি রোগ প্রতিরোধ করতে পারে।

১০. অনাক্রম্যতা জন্য ব্লুবেরি খাওয়ার উপকারিতা

আপনি যদি সহজেই কোনও রোগের শিকার হন তবে এর অর্থ আপনার প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল। আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে ব্লু-বেরি খাওয়া আপনার পক্ষে উপকারী হতে পারে। ব্লুবেরিতে ভাল পরিমাণে ফাইটোকেমিক্যাল থাকে, যা ইমিউন কোষগুলির ক্ষমতা উন্নত করে। শক্তিশালী অনাক্রম্যতা টিউমারগুলির মতো সমস্যাও সরিয়ে দেয় যা ক্যান্সারের মতো রোগের কারণ।

১১. চাপ কাটাতে ব্লুবেরির উপকারিতা

রান-অফ-দ্য মিল-এ যাঁর জীবন দেখতে পাওয়া তা চাপের মধ্যে রয়েছে। ক্রমাগত মানসিক চাপের মধ্যে থাকা আপনার পক্ষে ক্ষতিকারক হতে পারে। চাপ থেকে আপনাকে রক্ষা করার জন্য ব্লু-বেরি চেয়ে ভাল বিকল্প হিসাবে প্রমাণিত হতে পারে না। এতে পাওয়া অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্যগুলি আপনার স্ট্রেস উপশম করতে সক্ষম। এছাড়াও, ব্লু-বেরি ব্যবহার ক্রনিক স্ট্রেস এবং অক্সিডেটিভ স্ট্রেস থেকেও মুক্তি দিতে পারে।

১২. স্মৃতি বাড়াতে ব্লু-বেরি

বয়সের সাথে স্মৃতিও প্রভাবিত হতে শুরু করে। স্মৃতি বাড়াতে কেউ ব্লু-বেরির উপর নির্ভর করতে পারে। ব্লু-বেরিতে পাওয়া অ্যান্থোসায়ানিনে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। ব্লু-বেরিতে তাদের উপস্থিতি আপনাকে স্মৃতিশক্তির উন্নতি করতে পাশাপাশি নিউরোডিজেনারেশন এবং আলঝাইমার এর মতো অ্যামনেসিয়াসের চিকিৎসার ক্ষেত্রেও সহায়তা করতে পারে।

১৩. ইউটিআইয়ের জন্য ব্লু-বেরি

সাধারণত, ব্যাকটিরিয়া বা সংক্রমণের কারণে মহিলাদের মূত্রনালীর সংক্রমণ জনিতো রোগে আক্রান্ত হয়।এই সংক্রমণটি রোধ করতে ব্লু-বেরি জুস খাওয়া আপনার পক্ষে কার্যকর ঔষধ হিসাবে কাজ করতে পারে। ব্লু-বেরিতে ভিটামিন সি রয়েছে, যা ইউটিআই বিকশিত হওয়ার ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধ করে।

১৪. ত্বকের জন্য ব্লু-বেরি এর সুবিধা

ব্লুবেরি আপনার ত্বকের জন্যও উপকারী। এতে পাওয়া ভিটামিন-ই আপনার ত্বকের জন্য উপকারী হতে পারে। ভিটামিন-ই এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি কেবল আপনার ত্বকে সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে রক্ষা করে না, পর্যাপ্ত পুষ্টি সরবরাহের মাধ্যমে ত্বককে বিভিন্ন ক্ষতিকারক প্রভাব থেকেও রক্ষা করে। এছাড়াও, ভিটামিন-ই অক্সিডেটিভ স্ট্রেস হ্রাস করে এবং কুঁচকিকে হ্রাস করে, ত্বককে যৌবনে ফিরিয়ে দেয়। এটি ত্বককে চকচকে ও সুন্দর করার পাশাপাশি ত্বকের ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে।

১৫. চুলের জন্য ব্লুবেরি

যখন এটি সামগ্রিক স্বাস্থ্য, চুলের বৃদ্ধি এবং তাদের শক্তির কথা আসে তখনই ব্লু-বেরির কথা উঠে আসে। আপনি ইতিমধ্যে জানেন যে, ব্লু-বেরি ভিটামিন-এ, ভিটামিন-সি এবং ভিটামিন-ই এর একটি ভাল উৎস হিসাবে বিবেচিত । ব্লু-বেরিতে পাওয়া এই পুষ্টিগুলি আপনার চুলকে কেবল লম্বা এবং ঘন করে তোলে না, এটি চকচকে, শক্তিশালী এবং আকর্ষণীয় করে তুলবে, এটি খুশকি থেকে রক্ষা করে ।

 

Leave a Comment